০১:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় স্ত্রীকে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে স্বামীর দুধ দিয়ে গোসল

চুয়াডাঙ্গা সদরের নেহালপুরে নিজের স্ত্রীকে প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে আলোচনায় এসেছেন সেকেন্দার আলীর নামের এক যুবক।

বুধবার (৩ জুলাই) চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানাধীন নেহালপুর গ্রামের এ ঘটনা ঘটে।

সেকেন্দার আলীর নেহালপুর গ্রামের দরগাপাড়ার বাসিন্দা। তিনি পেশায় ট্রাক্টর চালক। ঘটনহার পর সেকেন্দার আলীর দুধ দিয়ে গোসলের একটি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মুহুর্তেই ভাইরাল হয়। গ্রামজুড়ে শুরু হয় সমালোচনার ঝড়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ট্রাক্টর চালক সেকেন্দার আলীর খালোতো ভাই মাজেদুল ইসলামের সঙ্গে তার স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী সাগরী খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রতিদিনই মোবাইলে কথাবার্তাও বলতেন দুজন। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে সেকেন্দার আলী তার স্ত্রীকে হাতে-নাতে ধরার অপেক্ষায় থাকেন।

বুধবার সন্ধ্যায় সেকেন্দার বাড়ির বাইরে গেলে তার স্ত্রী মাজেদুলের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেন। সেকেন্দার বিষয়টি টের পেয়ে স্ত্রী সাগরীকে মাজেদুলের বাড়িতে নিয়ে যান। ততক্ষণে মাজেদুল পালিয়ে যান। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় মাজেদুলের সাথে সাগরীর বিবাহ দেয়া হয়।

একই গ্রামের বাসিন্দা আল আমিন নামের এক যুবক বলেন, ‘স্ত্রীর সঙ্গে তার পরকীয়া প্রেমিকের বিয়ের দেয়ার ঘটনাটি গ্রামজুড়ে সকলের মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়েছে। বিয়ে দেয়ার পর দুধ দিয়ে গোসল করে আরও আলোচনায় উঠেছেন স্বামী সেকেন্দার আলী। বিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে মতভেদও দেখা দিয়েছে।’

এ বিষয়ে সেকেন্দার আলী জানান, পূর্বেও তাদের সম্পর্কের বিষয়ে জানতে পেরে সন্তানদের কথা ভেবে স্ত্রীর ভুল ক্ষমা করেছেন। কিন্তু বারবার একই ঘটনা ঘটনায় গ্রামবাসীর সাহায্যে তাদের বিয়ে দেয়া হয়েছে। দুধ দিয়ে গোসলের বিষয়ে সেকেন্দার আলী বলেন, তাদের বিয়ে দিতে পেরে যেন একটি পাপ থেকে মুক্তি পেয়েছি। তাই দুধ দিয়ে গোসল করেছি।

চুয়াডাঙ্গা সদরের নেহালপুরে নিজের স্ত্রীকে প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে আলোচনায় এসেছেন এক যুবক।

বুধবার (৩ জুলাই) চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানাধীন নেহালপুর গ্রামের দরগাপাড়ার ট্রাক্টর চালক সেকেন্দার আলীর দুধ দিয়ে গোসলের একটি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। মুহূর্তের মধ্যে ঘটনাটি সকলের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে গ্রামজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ট্রাক্টর চালক সেকেন্দার আলীর খালোতো ভাই মাজেদুল ইসলামের সঙ্গে তার স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী সাগরী খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রতিদিনই মোবাইলে কথাবার্তাও বলতেন দুজন। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে সেকেন্দার আলী তার স্ত্রীকে হাতে-নাতে ধরার অপেক্ষায় থাকেন।

বুধবার সন্ধ্যায় সেকেন্দার বাড়ির বাইরে গেলে তার স্ত্রী মাজেদুলের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেন। সেকেন্দার বিষয়টি টের পেয়ে স্ত্রী সাগরীকে মাজেদুলের বাড়িতে নিয়ে যান। ততক্ষণে মাজেদুল পালিয়ে যান। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় মাজেদুলের সাথে সাগরীর বিবাহ দেয়া হয়।

একই গ্রামের বাসিন্দা আল আমিন নামের এক যুবক বলেন, ‘স্ত্রীর সঙ্গে তার পরকীয়া প্রেমিকের বিয়ের দেয়ার ঘটনাটি গ্রামজুড়ে সকলের মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়েছে। বিয়ে দেয়ার পর দুধ দিয়ে গোসল করে আরও আলোচনায় উঠেছেন স্বামী সেকেন্দার আলী। বিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে মতভেদও দেখা দিয়েছে।’

এ বিষয়ে সেকেন্দার আলী জানান, পূর্বেও তাদের সম্পর্কের বিষয়ে জানতে পেরে সন্তানদের কথা ভেবে স্ত্রীর ভুল ক্ষমা করেছেন। কিন্তু বারবার একই ঘটনা ঘটনায় গ্রামবাসীর সাহায্যে তাদের বিয়ে দেয়া হয়েছে। দুধ দিয়ে গোসলের বিষয়ে সেকেন্দার আলী বলেন, তাদের বিয়ে দিতে পেরে যেন একটি পাপ থেকে মুক্তি পেয়েছি। তাই দুধ দিয়ে গোসল করেছি।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

চুয়াডাঙ্গাসহ সারাদেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

চুয়াডাঙ্গায় স্ত্রীকে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে স্বামীর দুধ দিয়ে গোসল

প্রকাশের সময় : ০৯:২৩:৩২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

চুয়াডাঙ্গা সদরের নেহালপুরে নিজের স্ত্রীকে প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে আলোচনায় এসেছেন সেকেন্দার আলীর নামের এক যুবক।

বুধবার (৩ জুলাই) চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানাধীন নেহালপুর গ্রামের এ ঘটনা ঘটে।

সেকেন্দার আলীর নেহালপুর গ্রামের দরগাপাড়ার বাসিন্দা। তিনি পেশায় ট্রাক্টর চালক। ঘটনহার পর সেকেন্দার আলীর দুধ দিয়ে গোসলের একটি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মুহুর্তেই ভাইরাল হয়। গ্রামজুড়ে শুরু হয় সমালোচনার ঝড়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ট্রাক্টর চালক সেকেন্দার আলীর খালোতো ভাই মাজেদুল ইসলামের সঙ্গে তার স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী সাগরী খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রতিদিনই মোবাইলে কথাবার্তাও বলতেন দুজন। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে সেকেন্দার আলী তার স্ত্রীকে হাতে-নাতে ধরার অপেক্ষায় থাকেন।

বুধবার সন্ধ্যায় সেকেন্দার বাড়ির বাইরে গেলে তার স্ত্রী মাজেদুলের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেন। সেকেন্দার বিষয়টি টের পেয়ে স্ত্রী সাগরীকে মাজেদুলের বাড়িতে নিয়ে যান। ততক্ষণে মাজেদুল পালিয়ে যান। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় মাজেদুলের সাথে সাগরীর বিবাহ দেয়া হয়।

একই গ্রামের বাসিন্দা আল আমিন নামের এক যুবক বলেন, ‘স্ত্রীর সঙ্গে তার পরকীয়া প্রেমিকের বিয়ের দেয়ার ঘটনাটি গ্রামজুড়ে সকলের মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়েছে। বিয়ে দেয়ার পর দুধ দিয়ে গোসল করে আরও আলোচনায় উঠেছেন স্বামী সেকেন্দার আলী। বিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে মতভেদও দেখা দিয়েছে।’

এ বিষয়ে সেকেন্দার আলী জানান, পূর্বেও তাদের সম্পর্কের বিষয়ে জানতে পেরে সন্তানদের কথা ভেবে স্ত্রীর ভুল ক্ষমা করেছেন। কিন্তু বারবার একই ঘটনা ঘটনায় গ্রামবাসীর সাহায্যে তাদের বিয়ে দেয়া হয়েছে। দুধ দিয়ে গোসলের বিষয়ে সেকেন্দার আলী বলেন, তাদের বিয়ে দিতে পেরে যেন একটি পাপ থেকে মুক্তি পেয়েছি। তাই দুধ দিয়ে গোসল করেছি।

চুয়াডাঙ্গা সদরের নেহালপুরে নিজের স্ত্রীকে প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে আলোচনায় এসেছেন এক যুবক।

বুধবার (৩ জুলাই) চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানাধীন নেহালপুর গ্রামের দরগাপাড়ার ট্রাক্টর চালক সেকেন্দার আলীর দুধ দিয়ে গোসলের একটি ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। মুহূর্তের মধ্যে ঘটনাটি সকলের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে গ্রামজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ট্রাক্টর চালক সেকেন্দার আলীর খালোতো ভাই মাজেদুল ইসলামের সঙ্গে তার স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী সাগরী খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রতিদিনই মোবাইলে কথাবার্তাও বলতেন দুজন। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে সেকেন্দার আলী তার স্ত্রীকে হাতে-নাতে ধরার অপেক্ষায় থাকেন।

বুধবার সন্ধ্যায় সেকেন্দার বাড়ির বাইরে গেলে তার স্ত্রী মাজেদুলের সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেন। সেকেন্দার বিষয়টি টের পেয়ে স্ত্রী সাগরীকে মাজেদুলের বাড়িতে নিয়ে যান। ততক্ষণে মাজেদুল পালিয়ে যান। পরে গ্রামবাসীর সহায়তায় মাজেদুলের সাথে সাগরীর বিবাহ দেয়া হয়।

একই গ্রামের বাসিন্দা আল আমিন নামের এক যুবক বলেন, ‘স্ত্রীর সঙ্গে তার পরকীয়া প্রেমিকের বিয়ের দেয়ার ঘটনাটি গ্রামজুড়ে সকলের মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়েছে। বিয়ে দেয়ার পর দুধ দিয়ে গোসল করে আরও আলোচনায় উঠেছেন স্বামী সেকেন্দার আলী। বিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে মতভেদও দেখা দিয়েছে।’

এ বিষয়ে সেকেন্দার আলী জানান, পূর্বেও তাদের সম্পর্কের বিষয়ে জানতে পেরে সন্তানদের কথা ভেবে স্ত্রীর ভুল ক্ষমা করেছেন। কিন্তু বারবার একই ঘটনা ঘটনায় গ্রামবাসীর সাহায্যে তাদের বিয়ে দেয়া হয়েছে। দুধ দিয়ে গোসলের বিষয়ে সেকেন্দার আলী বলেন, তাদের বিয়ে দিতে পেরে যেন একটি পাপ থেকে মুক্তি পেয়েছি। তাই দুধ দিয়ে গোসল করেছি।