০৩:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গার ছোটসলুয়া-বলদিয়া সড়ক নির্মাণে চরম অনিয়ম, কাজ বন্ধ করে দিল গ্রামবাসী

সেই সাথে সরকারি টাকায় নির্মিত সড়কের কাজ সিডিউল মোতাবেক করার জোর দাবি জানিয়েছেন তারা।

গ্রামবাসীরদের অভিযোগ, ওয়েষ্টার্ণ ইকোনমিক করিডোর এ্যাণ্ড রিজনাল ইনহ্যান্সমেন্ট প্রোগ্রাম (উইকেয়ার) প্রকল্পের আওতায় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের ছোটসলুয়া থেকে বলদিয়া বটতলা পর্যন্ত ২.২৯৭ কি.মিটার পাকা সড়ক নির্মানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ও বিশ্বব্যাংক ৬৮ কোটি টাকা বরাদ্ধ দেয়। টেণ্ডারে অংশগ্রহণ করে কাজের ঠিকাদারী পায় মোজাহার এন্টার প্রাইজ প্রা.লি.।

সোমবার (১০ জুন) নিম্নমানের ইট, বালি ও সিমেন্ট দিয়ে শ্রমিকেরা রাস্তা নির্মাণ কাজ করতে থাকেন। নিম্নমানের সামগ্রী কাজ করায় গ্রামবাসীর প্রতিবাদের মুখে একপর্যায় কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয় ঠিকাদার।

অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, সরকার টেকসই উন্নয়নের জন্য গ্রামকে শহরে পরিণত করার উদ্যোগ নিয়েছে। গ্রামের রাস্তা-ঘাট পাকাকরণ তারি একটি অংশ। অথচ কিছু অসাধু কর্মকর্তা এবং ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের জন্য সরকারে লক্ষ্য উদ্দেশ্যে বেহত হচ্ছে।

স্থানীয় আ.লীগ নেতা হারুন বলেন, সরকারের টাকায় রাস্তা হচ্ছে। ঠিকাদার এতই নিম্নমানের মালামাল দিয়ে রাস্তার কাজ করছে যা চোখে দেখে মেনে নেবার মত না। আমাদের দাবি ঠিকাদার সিডিউল মোতাবেক কাজ করুক।

তিতুদহ ইউপি চেয়ারম্যান শুকুর আলী বলেন, ঠিকাদার নিয়ম মেনে কাজ করবে এটাই তো চুক্তিপত্রে বলা আছে। পুকুরচুরি তো মেনে নেয়া যায় না।

জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী (এলজিইডি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, কাজে অনিয়ম হলে তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) এবং ঠিকাদারের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

চুয়াডাঙ্গার ছোটসলুয়া-বলদিয়া সড়ক নির্মাণে চরম অনিয়ম, কাজ বন্ধ করে দিল গ্রামবাসী

প্রকাশের সময় : ০২:০৪:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

সেই সাথে সরকারি টাকায় নির্মিত সড়কের কাজ সিডিউল মোতাবেক করার জোর দাবি জানিয়েছেন তারা।

গ্রামবাসীরদের অভিযোগ, ওয়েষ্টার্ণ ইকোনমিক করিডোর এ্যাণ্ড রিজনাল ইনহ্যান্সমেন্ট প্রোগ্রাম (উইকেয়ার) প্রকল্পের আওতায় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তিতুদহ ইউনিয়নের ছোটসলুয়া থেকে বলদিয়া বটতলা পর্যন্ত ২.২৯৭ কি.মিটার পাকা সড়ক নির্মানের জন্য বাংলাদেশ সরকার ও বিশ্বব্যাংক ৬৮ কোটি টাকা বরাদ্ধ দেয়। টেণ্ডারে অংশগ্রহণ করে কাজের ঠিকাদারী পায় মোজাহার এন্টার প্রাইজ প্রা.লি.।

সোমবার (১০ জুন) নিম্নমানের ইট, বালি ও সিমেন্ট দিয়ে শ্রমিকেরা রাস্তা নির্মাণ কাজ করতে থাকেন। নিম্নমানের সামগ্রী কাজ করায় গ্রামবাসীর প্রতিবাদের মুখে একপর্যায় কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয় ঠিকাদার।

অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, সরকার টেকসই উন্নয়নের জন্য গ্রামকে শহরে পরিণত করার উদ্যোগ নিয়েছে। গ্রামের রাস্তা-ঘাট পাকাকরণ তারি একটি অংশ। অথচ কিছু অসাধু কর্মকর্তা এবং ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের জন্য সরকারে লক্ষ্য উদ্দেশ্যে বেহত হচ্ছে।

স্থানীয় আ.লীগ নেতা হারুন বলেন, সরকারের টাকায় রাস্তা হচ্ছে। ঠিকাদার এতই নিম্নমানের মালামাল দিয়ে রাস্তার কাজ করছে যা চোখে দেখে মেনে নেবার মত না। আমাদের দাবি ঠিকাদার সিডিউল মোতাবেক কাজ করুক।

তিতুদহ ইউপি চেয়ারম্যান শুকুর আলী বলেন, ঠিকাদার নিয়ম মেনে কাজ করবে এটাই তো চুক্তিপত্রে বলা আছে। পুকুরচুরি তো মেনে নেয়া যায় না।

জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী (এলজিইডি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, কাজে অনিয়ম হলে তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) এবং ঠিকাদারের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি।