০৪:২৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গা শহরে দিনে-দুপুরে ব্যবসায়ীর ২ লাখ টাকা ছিনতাই

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে শেখপাড়ার বৈজনাথ বাগলার মারোয়ারি বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

মিলন হোসেন আহাদ চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের বুড়োপাড়া গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে। ইতোমধ্যে ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।

ভুক্তভোগী মিলন হোসেন আহাদ রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, আমি চুয়াডাঙ্গা শহরের ফেরিঘাট রোডের ডিজিটাল স্কেল সার্ভিসিংয়ের ব্যবসা করি। বুধবার দুপুরে ব্যবসায়ী ব্যাংক থেকে ১ লাখ টাকা এবং নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে থাকা আরও ১ লাখ টাকা ব্যাগে নিয়ে শহরের শেখপাড়ার গলি হয়ে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন।

এসময় শেখ পাড়ার গলির বৈজনাথ বাগলার মারোয়ারি বাড়ির সামনে পৌঁছালে পেছন থেকে অজ্ঞাত একজন ব্যক্তি আহাদের কোমড় জাপটে ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। অপরজন ব্যক্তি ব্যাগে থাকা নগদ ২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। আমি পিছু নিয়ে কিছুদূর যাওয়র পর তাদেরকে আর খুঁজে পাইনি। আমি চিৎকার করলেও কেও এগিয়ে আসেনি।

পরবর্তীতে আমার চিৎকার শুনে আশেপাশের বাড়ি থেকে লোকজন ছুটে আসে। ছিনতাইকারী দুজনের মুখই খোলা ছিল। তবে কাউকে চিনতে পারিনি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) শেখ সেকেন্দার আলী রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ঘটনাস্থলের একাধিক সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে৷ ছিনতায়কারীদের সনাক্ত করা যায়নি। এ ঘটনায় বুধবার রাতেই ভুক্তভোগী আহাদ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশি অভিযান চালাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এর আগেও এই এলাকার গলিতে নানা ধরনের অপকর্মের ঘটনা ঘটেছে। বিভিন্ন সময় নারীদের সাথে অশালীন আচরণ ও ছিনতাইয়ের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। চুরি কিংবা ছোটখাট ছিনতাইয়ের তথ্যও পাওয়া গেছে। গলিটি নির্জন হওয়ায় বখাটেদের উৎপাতও থাকে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

চুয়াডাঙ্গা শহরে দিনে-দুপুরে ব্যবসায়ীর ২ লাখ টাকা ছিনতাই

প্রকাশের সময় : ১০:১৩:১৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে শেখপাড়ার বৈজনাথ বাগলার মারোয়ারি বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে।

মিলন হোসেন আহাদ চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের বুড়োপাড়া গ্রামের মোক্তার হোসেনের ছেলে। ইতোমধ্যে ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।

ভুক্তভোগী মিলন হোসেন আহাদ রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, আমি চুয়াডাঙ্গা শহরের ফেরিঘাট রোডের ডিজিটাল স্কেল সার্ভিসিংয়ের ব্যবসা করি। বুধবার দুপুরে ব্যবসায়ী ব্যাংক থেকে ১ লাখ টাকা এবং নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে থাকা আরও ১ লাখ টাকা ব্যাগে নিয়ে শহরের শেখপাড়ার গলি হয়ে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন।

এসময় শেখ পাড়ার গলির বৈজনাথ বাগলার মারোয়ারি বাড়ির সামনে পৌঁছালে পেছন থেকে অজ্ঞাত একজন ব্যক্তি আহাদের কোমড় জাপটে ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। অপরজন ব্যক্তি ব্যাগে থাকা নগদ ২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। আমি পিছু নিয়ে কিছুদূর যাওয়র পর তাদেরকে আর খুঁজে পাইনি। আমি চিৎকার করলেও কেও এগিয়ে আসেনি।

পরবর্তীতে আমার চিৎকার শুনে আশেপাশের বাড়ি থেকে লোকজন ছুটে আসে। ছিনতাইকারী দুজনের মুখই খোলা ছিল। তবে কাউকে চিনতে পারিনি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) শেখ সেকেন্দার আলী রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ঘটনাস্থলের একাধিক সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে৷ ছিনতায়কারীদের সনাক্ত করা যায়নি। এ ঘটনায় বুধবার রাতেই ভুক্তভোগী আহাদ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশি অভিযান চালাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এর আগেও এই এলাকার গলিতে নানা ধরনের অপকর্মের ঘটনা ঘটেছে। বিভিন্ন সময় নারীদের সাথে অশালীন আচরণ ও ছিনতাইয়ের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। চুরি কিংবা ছোটখাট ছিনতাইয়ের তথ্যও পাওয়া গেছে। গলিটি নির্জন হওয়ায় বখাটেদের উৎপাতও থাকে।