০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জীবননগরে জমির আইল কাটা নিয়ে মারামারি, উভয়পক্ষের আহত ৪

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার পাঁকা গ্রামে জমির আইল কাটাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের চারজন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের পাঁকা গ্রামের উত্তরপাড়ার একটি মাঠে এই ঘটনা ঘটে।

প্রথমপক্ষের আহতরা হলেন, বাঁকা গ্রামের আজগার বিশ্বাস (৫০) ও তার ছেলে সোহাগ বিশ্বাস (৩২)।


দ্বীতিয়পক্ষের আহতরা হলেন, একই এলাকার নুর হক মন্ডলের ছেলে ওমেদুল মন্ডল (৪৩) ও আনোয়ার হোসেনের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৪৫)।

আহতরা জানায়, দীর্ঘদিন যাবত দুপক্ষের মধ্যে জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে প্রায় বাকবিতণ্ডা হয়।

মঙ্গলবার জমির আইল কাটা নিয়ে আবারো দুপক্ষের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের চারজন রক্তাক্ত জখম জখম হয়।

পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় আহত চারজনকেই জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। এরমধ্যে সোহাগ বিশ্বাসের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসক যশোর সদর হাসপাতালে ও ওমেদুল এবং আনোয়ার হোসেনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসক।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মেহবুবা মুস্তোরি মৌ রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, আহত দুজনের শরিরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদেরকে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

জীবননগর থানার পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) এস.এম জাবিদ হাসান রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, রাত ৮টার পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

জীবননগরে জমির আইল কাটা নিয়ে মারামারি, উভয়পক্ষের আহত ৪

প্রকাশের সময় : ০৯:৫৪:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার পাঁকা গ্রামে জমির আইল কাটাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের চারজন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের পাঁকা গ্রামের উত্তরপাড়ার একটি মাঠে এই ঘটনা ঘটে।

প্রথমপক্ষের আহতরা হলেন, বাঁকা গ্রামের আজগার বিশ্বাস (৫০) ও তার ছেলে সোহাগ বিশ্বাস (৩২)।


দ্বীতিয়পক্ষের আহতরা হলেন, একই এলাকার নুর হক মন্ডলের ছেলে ওমেদুল মন্ডল (৪৩) ও আনোয়ার হোসেনের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৪৫)।

আহতরা জানায়, দীর্ঘদিন যাবত দুপক্ষের মধ্যে জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে প্রায় বাকবিতণ্ডা হয়।

মঙ্গলবার জমির আইল কাটা নিয়ে আবারো দুপক্ষের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের চারজন রক্তাক্ত জখম জখম হয়।

পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় আহত চারজনকেই জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। এরমধ্যে সোহাগ বিশ্বাসের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসক যশোর সদর হাসপাতালে ও ওমেদুল এবং আনোয়ার হোসেনকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসক।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক মেহবুবা মুস্তোরি মৌ রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, আহত দুজনের শরিরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদেরকে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

জীবননগর থানার পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) এস.এম জাবিদ হাসান রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, রাত ৮টার পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।