১১:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে কেনা ৪ মহিষ পুড়ল আগুনে, কান্না থামছেনা কৃষকের

মশার কয়েলের ভয়াবহ আগুনে পুড়ে মারা গেছে কৃষকের চারটি মহিষ। রোববার (১৪ এপ্রিল) রাতে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়নের সুতলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হরিশংকরপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও সুতলিয়া গ্রামের ইউপি সদস্য মো. ইব্রাহিম মিয়া বলেন, গত রাতে গ্রামের কৃষক হোসেন আলীর গোয়ালঘরে আগুন লেগে মুহূর্তেই আগুন পুরো গোয়ালঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

টের পেয়ে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে প্রায় ৪৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে পুড়ে মারা যায় কৃষকের চারটি মহিষ। এ সময় দগ্ধ হয় আরও একটি গরু। এতে কৃষকের প্রায় ৭/৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে মহিষ কিনেছিলেন কৃষক হোসেন আলী।

বাড়ির পাশে মহিষ চারটিকে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে। সংবাদ শুনে সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস থেকে কৃষকের বাড়ি পরিদর্শন করে সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

ঝিনাইদহ ফায়ার সার্ভিসের ইন্সপেক্টর তানভীর হাসান বলেন, আমরা দুইটি ইউনিট প্রায় ৪৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছি। ধারণা করছি মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল। আগুনের কারণে কৃষকের চারটি মহিষ মারা গেছে।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মনোজিৎ কুমার মন্ডল বলেন, আগুনে কৃষক হোসেন আলীর অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। কোনো সহযোগিতা পেলে অবশ্যই তাকে দেওয়া হবে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

চুয়াডাঙ্গাসহ সারাদেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে কেনা ৪ মহিষ পুড়ল আগুনে, কান্না থামছেনা কৃষকের

প্রকাশের সময় : ০৪:৫২:১১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

মশার কয়েলের ভয়াবহ আগুনে পুড়ে মারা গেছে কৃষকের চারটি মহিষ। রোববার (১৪ এপ্রিল) রাতে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়নের সুতলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হরিশংকরপুর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও সুতলিয়া গ্রামের ইউপি সদস্য মো. ইব্রাহিম মিয়া বলেন, গত রাতে গ্রামের কৃষক হোসেন আলীর গোয়ালঘরে আগুন লেগে মুহূর্তেই আগুন পুরো গোয়ালঘরে ছড়িয়ে পড়ে।

টের পেয়ে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে প্রায় ৪৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে পুড়ে মারা যায় কৃষকের চারটি মহিষ। এ সময় দগ্ধ হয় আরও একটি গরু। এতে কৃষকের প্রায় ৭/৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে মহিষ কিনেছিলেন কৃষক হোসেন আলী।

বাড়ির পাশে মহিষ চারটিকে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে। সংবাদ শুনে সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস থেকে কৃষকের বাড়ি পরিদর্শন করে সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

ঝিনাইদহ ফায়ার সার্ভিসের ইন্সপেক্টর তানভীর হাসান বলেন, আমরা দুইটি ইউনিট প্রায় ৪৫ মিনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছি। ধারণা করছি মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল। আগুনের কারণে কৃষকের চারটি মহিষ মারা গেছে।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মনোজিৎ কুমার মন্ডল বলেন, আগুনে কৃষক হোসেন আলীর অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। কোনো সহযোগিতা পেলে অবশ্যই তাকে দেওয়া হবে।