০৫:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের সৌজন্যে স্বাধীনতা দ্বৈত ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও তারাদেবী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার আরএম ফয়জুর রহমান-পিপিএম (সেবা) এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মন্জু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, স্বাধীনতার মাসে চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগ আয়োজিত এই স্বাধীনতা দ্বৈত ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টটি অত্যন্ত প্রাণবন্ত এবং চমৎকারভাবে শেষ হয়েছে। এই আয়োজনের জন্য চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগকে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

একই সঙ্গে এই আয়োজনে মূখ্য ভূমিকা রাখায় তারাদেবী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অনুষ্ঠানের সভাপতি দিলীপ কুমার আগরওয়ালাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, আমি দেখেছি, এই অঞ্চলের মানুষ স্বাংস্কৃকিত ও খেলাধুলা প্রিয়। পুলিশ কারও প্রতিপক্ষ না। আমি চাই আমাদের চুয়াডাঙ্গায় সবাই মিলে মিশে এই জেলাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। খেলায় প্রতিপক্ষ থাকবে, হার জিত থাকবে। খেলা শেষ ভেদাভেদ ভুলে আবার একসঙ্গে পথ চলতে হবে। তিনি বলেন, আমরা সবাই চুয়াডাঙ্গাবাসী, এই চুয়াডাঙ্গা আমাদের। এই এলাকার সম্ভ্রম, সম্মান, উন্নতি সবই আমাদের হাতে। আমরা সবাই মিলে এই জেলার সুমান অক্ষুন্ন রাখতে কাজ করে যাব।

সভাতির বক্তব্যে দিলীপ কুমার আগওয়ালা বলেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আমাদের অনুপ্রাণিত করেছেন। আমরা সেই অনুপ্রেরণায় নিজেদেরকে আরও নিজেদেরকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব। আমরা তখনই সার্থক যখন, বিশ্বের কেউ বলবেন, চুয়াডাঙ্গার সন্তান পদক পেয়েছেন। লেখাপড়ার পাশাপশি খেলাধুলা কোন ব্যক্তিকে সারা বিশ্বে পরিচিত করিয়ে দিতে পারে।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মন্জু বলেন, খেলাধুলা যে আমাদের বিনোদন দেয় তা নয়, এটি আমাদের দেহ মনকেও সুস্থ রাখে। এই ধরনের আয়োজনের ধারাবাহিকতা থাকা উচিত। আমি আমার জায়গা থেকে সব সময় সহযোগিতা করবো। এরকম একটি আয়োজনের জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।

সাংবাদিক হুসাইন মালিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন আল আজাদ (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্), জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যারয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি রাজীব হাসান কচি, দৈনিক সময়ের সমীকরণের প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন, দৈনক আকাশ খবর পত্রিকার সম্পাদক জান্নাতুল আউলিয়ার নিশি, চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ সেকেন্দার আলী প্রমুখ।

স্বাধীনতা দ্বৈত ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতার ফাইনালে অংশগ্রহণ করে আমাদের খেলাঘর দল ও জনি স্মৃতি ক্লাব (১)। খেলায় আমাদের খেলাঘর দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে জনি স্মৃতি ক্লাব (১)। খেলা শেষে বিজয়ী ও বিজিত জুটির হাতে ট্রফি তুলে দেন প্রধান অতিথি, সভাপতিসহ আমন্ত্রীত অতিথিরা। খেলা পরিচালনা করেন রাসেল, অনুপ, সবুজ, সোহান, সোহেল, আলামিন, বাবু, মুক্তার, মাহিন, শাওন ও অভি প্রমুখ।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের সৌজন্যে স্বাধীনতা দ্বৈত ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ

প্রকাশের সময় : ১২:২৪:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও তারাদেবী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার আগরওয়ালার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার আরএম ফয়জুর রহমান-পিপিএম (সেবা) এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মন্জু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, স্বাধীনতার মাসে চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগ আয়োজিত এই স্বাধীনতা দ্বৈত ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টটি অত্যন্ত প্রাণবন্ত এবং চমৎকারভাবে শেষ হয়েছে। এই আয়োজনের জন্য চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগকে আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

একই সঙ্গে এই আয়োজনে মূখ্য ভূমিকা রাখায় তারাদেবী ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অনুষ্ঠানের সভাপতি দিলীপ কুমার আগরওয়ালাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, আমি দেখেছি, এই অঞ্চলের মানুষ স্বাংস্কৃকিত ও খেলাধুলা প্রিয়। পুলিশ কারও প্রতিপক্ষ না। আমি চাই আমাদের চুয়াডাঙ্গায় সবাই মিলে মিশে এই জেলাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। খেলায় প্রতিপক্ষ থাকবে, হার জিত থাকবে। খেলা শেষ ভেদাভেদ ভুলে আবার একসঙ্গে পথ চলতে হবে। তিনি বলেন, আমরা সবাই চুয়াডাঙ্গাবাসী, এই চুয়াডাঙ্গা আমাদের। এই এলাকার সম্ভ্রম, সম্মান, উন্নতি সবই আমাদের হাতে। আমরা সবাই মিলে এই জেলার সুমান অক্ষুন্ন রাখতে কাজ করে যাব।

সভাতির বক্তব্যে দিলীপ কুমার আগওয়ালা বলেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আমাদের অনুপ্রাণিত করেছেন। আমরা সেই অনুপ্রেরণায় নিজেদেরকে আরও নিজেদেরকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব। আমরা তখনই সার্থক যখন, বিশ্বের কেউ বলবেন, চুয়াডাঙ্গার সন্তান পদক পেয়েছেন। লেখাপড়ার পাশাপশি খেলাধুলা কোন ব্যক্তিকে সারা বিশ্বে পরিচিত করিয়ে দিতে পারে।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মন্জু বলেন, খেলাধুলা যে আমাদের বিনোদন দেয় তা নয়, এটি আমাদের দেহ মনকেও সুস্থ রাখে। এই ধরনের আয়োজনের ধারাবাহিকতা থাকা উচিত। আমি আমার জায়গা থেকে সব সময় সহযোগিতা করবো। এরকম একটি আয়োজনের জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই।

সাংবাদিক হুসাইন মালিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন আল আজাদ (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্), জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যারয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি রাজীব হাসান কচি, দৈনিক সময়ের সমীকরণের প্রধান সম্পাদক নাজমুল হক স্বপন, দৈনক আকাশ খবর পত্রিকার সম্পাদক জান্নাতুল আউলিয়ার নিশি, চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ সেকেন্দার আলী প্রমুখ।

স্বাধীনতা দ্বৈত ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতার ফাইনালে অংশগ্রহণ করে আমাদের খেলাঘর দল ও জনি স্মৃতি ক্লাব (১)। খেলায় আমাদের খেলাঘর দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে জনি স্মৃতি ক্লাব (১)। খেলা শেষে বিজয়ী ও বিজিত জুটির হাতে ট্রফি তুলে দেন প্রধান অতিথি, সভাপতিসহ আমন্ত্রীত অতিথিরা। খেলা পরিচালনা করেন রাসেল, অনুপ, সবুজ, সোহান, সোহেল, আলামিন, বাবু, মুক্তার, মাহিন, শাওন ও অভি প্রমুখ।