০৩:৪১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জীবননগরে পুকুরে ডুবে প্রাণ গেল ২ বোনের

তবে স্থানীয় ও নিহতের পরিবারের সদস্যদের দাবি, অসাবধানতায় পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। 

নিহতরা হলো- শাখারিয়া গ্রামের মসজিদপাড়ার আরশাফুল হকের মেয়ে তাবাসসুম (১০) একই এলাকার রাজু আহম্মেদের মেয়ে রিতু খাতুন (৮)। এরা দুজন সম্পর্কে আপন চাচাতো বোন। এরমধ্যে  তাবাসসুম তৃতীয় শ্রেনী ও রিতু খাতুন দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

স্থানীয় গ্রাম পুলিশের সদস্য মিলন মোল্লা রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, দুই চাচাতো বোনকে না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা বিভিন্নস্থানে খোঁজাখুজি করতে থাকেন৷ এ সময় বাড়ির পাশেই নিজাম উদ্দিনের পুকুরের মধ্যে স্যান্ডেল ভাসতে দেখা যায়। পরে স্থানীয়রা পুকুরে তল্লাশি চালিয়ে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে। 

তিনি আরও বলেন, পুকুরে মারা যাওয়া মাছ তুলতে গিয়ে পানিতে ঢুবে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুজনই স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় ও দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল। দুজনের মৃত্যুতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ডের (ইউপি) সদস্য আব্দুর রাজ্জাক ডাবলু রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, শুনেছি দুই চাচাতো বোন পানিতে ঢুবে মারা গেছে। 

সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইশাবুল ইসলাম মিল্টন রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় আজও গোসল করছিল দুই চাচাতো বোন। তবে কখন কিভাবে পানিতে ঢুবে গেছে কেউ জানেনা। পরে খোজাখুজির পর পুকুরের মধ্যে থেকে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

জীবননগর থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, পানিতে ঢুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে সংবাদ পেয়েছি। পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।  

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

জীবননগরে পুকুরে ডুবে প্রাণ গেল ২ বোনের

প্রকাশের সময় : ০৪:০৮:০০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

তবে স্থানীয় ও নিহতের পরিবারের সদস্যদের দাবি, অসাবধানতায় পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। 

নিহতরা হলো- শাখারিয়া গ্রামের মসজিদপাড়ার আরশাফুল হকের মেয়ে তাবাসসুম (১০) একই এলাকার রাজু আহম্মেদের মেয়ে রিতু খাতুন (৮)। এরা দুজন সম্পর্কে আপন চাচাতো বোন। এরমধ্যে  তাবাসসুম তৃতীয় শ্রেনী ও রিতু খাতুন দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

স্থানীয় গ্রাম পুলিশের সদস্য মিলন মোল্লা রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, দুই চাচাতো বোনকে না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা বিভিন্নস্থানে খোঁজাখুজি করতে থাকেন৷ এ সময় বাড়ির পাশেই নিজাম উদ্দিনের পুকুরের মধ্যে স্যান্ডেল ভাসতে দেখা যায়। পরে স্থানীয়রা পুকুরে তল্লাশি চালিয়ে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে। 

তিনি আরও বলেন, পুকুরে মারা যাওয়া মাছ তুলতে গিয়ে পানিতে ঢুবে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুজনই স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় ও দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল। দুজনের মৃত্যুতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ডের (ইউপি) সদস্য আব্দুর রাজ্জাক ডাবলু রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, শুনেছি দুই চাচাতো বোন পানিতে ঢুবে মারা গেছে। 

সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইশাবুল ইসলাম মিল্টন রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় আজও গোসল করছিল দুই চাচাতো বোন। তবে কখন কিভাবে পানিতে ঢুবে গেছে কেউ জানেনা। পরে খোজাখুজির পর পুকুরের মধ্যে থেকে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

জীবননগর থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, পানিতে ঢুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে সংবাদ পেয়েছি। পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।