০৪:৪৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলমডাঙ্গায় ২ দোকান থেকে বিপুল পরিমান নকল ওরস্যাল্যাইন জব্দ : জরিমানা ৫০ হাজার

রোববার (২০ মে) অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ চুয়াডাঙ্গা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ।

অভিযান সূত্রে জানা গেছে, রবিবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত আলমডাঙ্গা উপজেলার ভাংবাড়িয়া গ্রামে সার-কীটনাশক, মুদিদোকাসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের প্রতিষ্ঠানে তদারকি করা হয়। এ সময় ভাংবাড়ীয়া এলাকায় মেসার্স মারিফুল স্টোর নামক একটি দোকান তদারকিকালে ‘এসএমসি ওরস্যালাইন এন’-এর নকল ৫শ’ প্যাকেট ওরস্যালাইন জব্দ করা হয়। এছাড়া অতিরিক্ত মুল্যে সার বিক্রয় ও সারের ক্রয় বিক্রয় রশিদ সংরক্ষণ না করার অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক মারুফুল ইসলামকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পরে মারুফুলকে নিয়ে নকল ওরস্যালাইনের বিতরণকারী পরিবেশক মেসার্স লিটন স্টোর নামক প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় প্রতিষ্ঠানটির মালিক লিটনুজ্জামানের বাড়ি ও গোডাউন তল্লাশি করে আরও ৩ হাজার প্যাকেট নকল এস এসএমসির ওরস্যালাইন জব্দ করা হয়। নকল ভেজাল স্যালাইন বিক্রয়ের অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক লিটনুজ্জামানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

চুয়াডাঙ্গা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, সাড়ে ৩ হাজার প্যাকেট নকল স্যালাইন জব্দ করে আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়। দুটি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

আলমডাঙ্গায় ২ দোকান থেকে বিপুল পরিমান নকল ওরস্যাল্যাইন জব্দ : জরিমানা ৫০ হাজার

প্রকাশের সময় : ১০:৩৩:১১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

রোববার (২০ মে) অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ চুয়াডাঙ্গা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ।

অভিযান সূত্রে জানা গেছে, রবিবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত আলমডাঙ্গা উপজেলার ভাংবাড়িয়া গ্রামে সার-কীটনাশক, মুদিদোকাসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের প্রতিষ্ঠানে তদারকি করা হয়। এ সময় ভাংবাড়ীয়া এলাকায় মেসার্স মারিফুল স্টোর নামক একটি দোকান তদারকিকালে ‘এসএমসি ওরস্যালাইন এন’-এর নকল ৫শ’ প্যাকেট ওরস্যালাইন জব্দ করা হয়। এছাড়া অতিরিক্ত মুল্যে সার বিক্রয় ও সারের ক্রয় বিক্রয় রশিদ সংরক্ষণ না করার অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক মারুফুল ইসলামকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পরে মারুফুলকে নিয়ে নকল ওরস্যালাইনের বিতরণকারী পরিবেশক মেসার্স লিটন স্টোর নামক প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় প্রতিষ্ঠানটির মালিক লিটনুজ্জামানের বাড়ি ও গোডাউন তল্লাশি করে আরও ৩ হাজার প্যাকেট নকল এস এসএমসির ওরস্যালাইন জব্দ করা হয়। নকল ভেজাল স্যালাইন বিক্রয়ের অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির মালিক লিটনুজ্জামানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

চুয়াডাঙ্গা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহম্মেদ রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, সাড়ে ৩ হাজার প্যাকেট নকল স্যালাইন জব্দ করে আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়। দুটি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।