০৫:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় চালককে মারধর করে পাখিভ্যান ছিনতাইয়ের অভিযোগ

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে চালককে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে ও মারধর করে পাখিভ্যান ছিনতাই করেছে যাত্রীবেশে এক দুর্বৃত্ত।

রোববার (১২ মে) সকালে অচেতন অবস্থায় ইসরাফিল হোসেন (৩৫) নামের ওই ভ্যানচালককে উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ইসরাফিল হোসেন জীবননগর হাইস্কুল পাড়ার নুর মোহাম্মদের ছেলে। শনিবার (১১ মে) রাত ৯টার দিকে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার ধোপাখালি-সন্তোষপুর সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে জীবননগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জীবননগর থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে নিশ্চিত করে বলেন, যাত্রীবেশে চালককে মারধর করে পাখিভ্যান ছিনিয়ে নিয়েছে বলে জেনেছি। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা নুর মোহাম্মদ একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আহত ইসরাফিলের বোন মধু রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ‘শনিবার রাত ৮টার দিকে একজন দর্শনায় যাওয়ার জন্য আমার ভাইয়ের ভ্যান ভাড়া করে। ওই দিন রাতেই দর্শনা থেকে ফেরার সময় একটি দোকানে বসে ওই লোক কোমল পানীয়ের সঙ্গে চেতনাশক ওষুধ মিশিয়ে আমার ভাইকে খাইয়ে দেন। পরে ধোপাখালী এসে তাঁকে মারধর করে পুকুরের মধ্যে ফেলে দিয়ে ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়।’

মধু আরও জানান, ‘স্থানীয় লোকজন আমার ভাইকে উদ্ধার করে একটি দোকানে শুয়িয়ে রেখেছিল। রোববার ভোরে খবর পেয়ে আমার মা ধোপাখালী থেকে ভাইকে নিয়ে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগী ভ্যানচালক ইসরাফিল হোসেন রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ‘আমাকে কোকের মধ্যে কিছু মিশিয়ে খাইয়ে দিয়েছিল বলে মনে হচ্ছে। কোক তেতো লাগছিল। পরে ধোপাখালী এসে আমাকে ধাক্কা মেরে পুকুরের মধ্যে ফেলে দেয়। আমি যতবার উঠতে যাচ্ছিলাম বারবার পড়ে যাচ্ছিলাম।’

এ বিষয়ে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ড. মোস্তাফিজুর রহমান সুজন রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ‘রোববার ভোরে ইসরাফিল নামের এক রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসে স্বজনরা। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। আমরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি রেখেছি। তিনি সম্পূর্ণ শঙ্কামুক্ত।’

এএইচ

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

চুয়াডাঙ্গায় চালককে মারধর করে পাখিভ্যান ছিনতাইয়ের অভিযোগ

প্রকাশের সময় : ০৫:০৮:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪

চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে চালককে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে ও মারধর করে পাখিভ্যান ছিনতাই করেছে যাত্রীবেশে এক দুর্বৃত্ত।

রোববার (১২ মে) সকালে অচেতন অবস্থায় ইসরাফিল হোসেন (৩৫) নামের ওই ভ্যানচালককে উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহত ইসরাফিল হোসেন জীবননগর হাইস্কুল পাড়ার নুর মোহাম্মদের ছেলে। শনিবার (১১ মে) রাত ৯টার দিকে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার ধোপাখালি-সন্তোষপুর সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় ভুক্তভোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে জীবননগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জীবননগর থানা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে নিশ্চিত করে বলেন, যাত্রীবেশে চালককে মারধর করে পাখিভ্যান ছিনিয়ে নিয়েছে বলে জেনেছি। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর পিতা নুর মোহাম্মদ একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আহত ইসরাফিলের বোন মধু রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ‘শনিবার রাত ৮টার দিকে একজন দর্শনায় যাওয়ার জন্য আমার ভাইয়ের ভ্যান ভাড়া করে। ওই দিন রাতেই দর্শনা থেকে ফেরার সময় একটি দোকানে বসে ওই লোক কোমল পানীয়ের সঙ্গে চেতনাশক ওষুধ মিশিয়ে আমার ভাইকে খাইয়ে দেন। পরে ধোপাখালী এসে তাঁকে মারধর করে পুকুরের মধ্যে ফেলে দিয়ে ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়।’

মধু আরও জানান, ‘স্থানীয় লোকজন আমার ভাইকে উদ্ধার করে একটি দোকানে শুয়িয়ে রেখেছিল। রোববার ভোরে খবর পেয়ে আমার মা ধোপাখালী থেকে ভাইকে নিয়ে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগী ভ্যানচালক ইসরাফিল হোসেন রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ‘আমাকে কোকের মধ্যে কিছু মিশিয়ে খাইয়ে দিয়েছিল বলে মনে হচ্ছে। কোক তেতো লাগছিল। পরে ধোপাখালী এসে আমাকে ধাক্কা মেরে পুকুরের মধ্যে ফেলে দেয়। আমি যতবার উঠতে যাচ্ছিলাম বারবার পড়ে যাচ্ছিলাম।’

এ বিষয়ে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ড. মোস্তাফিজুর রহমান সুজন রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, ‘রোববার ভোরে ইসরাফিল নামের এক রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসে স্বজনরা। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। আমরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি রেখেছি। তিনি সম্পূর্ণ শঙ্কামুক্ত।’

এএইচ