০৪:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলমডাঙ্গায় চিকিৎসক-নার্সের উপস্থিত ছাড়াই চলছিল ২ ক্লিনিকের কার্যক্রম, জরিমানা

আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) স্নিগ্ধা দাস ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: হাদি জিয়া উদ্দীন আহমেদ ও থানা পুলিশের একটি দল অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সুত্রে জানা যায়, উপজেলার ডাউকি ইউনিয়নের হাউসপুর এলাকার ফিরোজা ক্লিনিক ও আল-মদিনা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চালানোর সময় সেখানে কোনো চিকিৎসক বা নার্সের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ফিরোজা ক্লিনিকের মালিককে ২৫ হাজার টাকা ও আল-মদিনা ক্লিনিকের মালিককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ফিরোজা ক্লিনিকের কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক স্নিগ্ধা দাস রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, চিকিৎসক এবং নার্সের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। এছাড়া বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে দুই ক্লিনিক মালিককে জরিমানা করা হয়েছে এবং এরমধ্যে একটি ক্লিনিকের কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

অনির্দিষ্টকালের জন্য দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

আলমডাঙ্গায় চিকিৎসক-নার্সের উপস্থিত ছাড়াই চলছিল ২ ক্লিনিকের কার্যক্রম, জরিমানা

প্রকাশের সময় : ০৩:০৭:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আজ বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) স্নিগ্ধা দাস ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: হাদি জিয়া উদ্দীন আহমেদ ও থানা পুলিশের একটি দল অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সুত্রে জানা যায়, উপজেলার ডাউকি ইউনিয়নের হাউসপুর এলাকার ফিরোজা ক্লিনিক ও আল-মদিনা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযান চালানোর সময় সেখানে কোনো চিকিৎসক বা নার্সের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ফিরোজা ক্লিনিকের মালিককে ২৫ হাজার টাকা ও আল-মদিনা ক্লিনিকের মালিককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ফিরোজা ক্লিনিকের কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক স্নিগ্ধা দাস রেডিও চুয়াডাঙ্গাকে বলেন, চিকিৎসক এবং নার্সের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। এছাড়া বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে দুই ক্লিনিক মালিককে জরিমানা করা হয়েছে এবং এরমধ্যে একটি ক্লিনিকের কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।