১১:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাখালডাঙ্গা ইউপি নির্বাচন: চেয়াম্যান পদপ্রার্থী চন্দনের সমর্থককে জরিমানা

অভিযান সূত্রে জানা যায়, মাখালডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আরশাদ উদ্দিন আহমেদ চন্দনের মোটরসাইকেল প্রতীকের পথসভার জন্য মাখালডাঙ্গা গ্রামের রাস্তা ব্লক করে চেয়ার টেবিল রাখা হয়। উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রমাণ পায়।

সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবহিত না করে এবং রাস্তা ব্লক করে জনসভা করায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের সমর্থক জামির আলীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জরিমানার সময় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের শ্যালক ইমরানসহ বেশ কয়েক হট্টগোলের সৃষ্টি করেন।

ইমরানের নেতৃত্বে কয়েকজন হট্টগোলকে বৃদ্ধি করে পরিস্থিতিকে অশান্ত করার পাঁয়তারা করেন। সেখানে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীরা ভিডিও ও ছবি নিতে গেলে তাঁদের সঙ্গেও খারাপ আচরণ করা হয়।

ভিডিও ডিলিট করতে সাংবাদিকদের প্রকাশ্যে হুমকিও প্রদান করে মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের আত্মীয় ইমরান। সাংবাদিকের মোবাইল কেড়ে নিতে গেলে জেলা পুলিশের একটি টিম উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাজ্জাদ হোসেনের নির্দেশনায় পরিস্থিতি শান্ত করেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আচরণবিধি লঙ্ঘন করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে না জানিয়ে এবং রাস্তা ব্লক করে জনসভা করার চেষ্টা করায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের সমর্থক জামির আলীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এদিকে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিমানা করা হলেও একই স্থানে মোটরসাইকেল প্রতীকের জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানা যায়। ভ্রাম্যমাণ আদালত শেষ হলে পুনরায় একই স্থানে চেয়ার টেবিল দিয়ে এ জনসভা করা হয়। এবং জনসভায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দন উপস্থিত ছিলেন।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

চুয়াডাঙ্গাসহ সারাদেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

মাখালডাঙ্গা ইউপি নির্বাচন: চেয়াম্যান পদপ্রার্থী চন্দনের সমর্থককে জরিমানা

প্রকাশের সময় : ০১:১৮:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

অভিযান সূত্রে জানা যায়, মাখালডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আরশাদ উদ্দিন আহমেদ চন্দনের মোটরসাইকেল প্রতীকের পথসভার জন্য মাখালডাঙ্গা গ্রামের রাস্তা ব্লক করে চেয়ার টেবিল রাখা হয়। উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করে আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রমাণ পায়।

সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবহিত না করে এবং রাস্তা ব্লক করে জনসভা করায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের সমর্থক জামির আলীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। জরিমানার সময় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের শ্যালক ইমরানসহ বেশ কয়েক হট্টগোলের সৃষ্টি করেন।

ইমরানের নেতৃত্বে কয়েকজন হট্টগোলকে বৃদ্ধি করে পরিস্থিতিকে অশান্ত করার পাঁয়তারা করেন। সেখানে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীরা ভিডিও ও ছবি নিতে গেলে তাঁদের সঙ্গেও খারাপ আচরণ করা হয়।

ভিডিও ডিলিট করতে সাংবাদিকদের প্রকাশ্যে হুমকিও প্রদান করে মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের আত্মীয় ইমরান। সাংবাদিকের মোবাইল কেড়ে নিতে গেলে জেলা পুলিশের একটি টিম উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাজ্জাদ হোসেনের নির্দেশনায় পরিস্থিতি শান্ত করেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আচরণবিধি লঙ্ঘন করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে না জানিয়ে এবং রাস্তা ব্লক করে জনসভা করার চেষ্টা করায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দনের সমর্থক জামির আলীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এদিকে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে জরিমানা করা হলেও একই স্থানে মোটরসাইকেল প্রতীকের জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানা যায়। ভ্রাম্যমাণ আদালত শেষ হলে পুনরায় একই স্থানে চেয়ার টেবিল দিয়ে এ জনসভা করা হয়। এবং জনসভায় মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী আরশাদ উদ্দীন আহমেদ চন্দন উপস্থিত ছিলেন।