১১:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুয়াডাঙ্গায় দীর্ঘ ৩৭ বছর পর অবসরে যাওয়া ঈমামকে রাজকীয় বিদায়

চুয়াডাঙ্গায় দীর্ঘ ৩৭ বছর পর অবসরে যাওয়া মসজিদের ঈমামকে রাজকীয় বিদায় দিয়েছেন মসজিদ কমিটি ও মুসল্লিরা। মঙ্গলবার (৭ মে) বাদ এশা মসজিদে অনাড়াম্বর এক বিদায় অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

মসজিদ কমিটি সূত্র জানায়, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বেলগাছি এলাকার বাসিন্দা হাফেজ আব্দুল মজিদ দীর্ঘ ৩৭ বছর চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল রোডে অবস্থিত বায়তুল আমান জামে মসজিদের পেশ ঈমাম ছিলেন। এমতাবস্থায় হাফেজ আব্দুল মজিদ বয়সের ভারে নুয়ে পড়ায় মসজিদ কমিটি তাকে সম্মানের সহিত রাজকীয় বিদায় জানায়।

তাকে মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে ওমরা হজ পালন করানোর খরচ বহনসহ নগদ ৩ লাখ টাকা দিয়ে ফুলের শুভেচ্ছা দিয়ে বিদায় জানানো হয়।

এ সময় উপস্থিত মসজিদ কমিটির লোকজনসহ সাধারণ মুসল্লিরা তাকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। পরে হাফেজ আব্দুল মজিদকে ফুল দিয়ে সাজানো মাইক্রোবাসে করে বাড়িতে পৌঁছে দেয় মসজিদ কমিটি। হাফেজ আব্দুল মজিদের এই রাজকীয় বিদায়ে তার পরিবারসহ সাধারণ মানুষ বায়তুল আমান জামে মসজিদের কমিটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

বিদায় অনুষ্ঠানে মুফতি রুহুল আমীনসহ মসজিদ কমিটির সদস্যরাসহ সাধারণ মুসল্লিরা ও অত্র এলাকার হাফেজ ওলামাগণ উপস্থিত ছিলেন।

হাফেজ আব্দুল মজিদ আবেগজড়িত কণ্ঠে বলেন, আল্লাহ পাক আমাকে এ সম্মান দিলেন। তার দরবারে হাজারো শুকরিয়া। আমি সত্যিই অভিভূত হয়েছি।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়

চুয়াডাঙ্গাসহ সারাদেশে ২২৯ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

চুয়াডাঙ্গায় দীর্ঘ ৩৭ বছর পর অবসরে যাওয়া ঈমামকে রাজকীয় বিদায়

প্রকাশের সময় : ০৯:৫৮:৪৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ মে ২০২৪

চুয়াডাঙ্গায় দীর্ঘ ৩৭ বছর পর অবসরে যাওয়া মসজিদের ঈমামকে রাজকীয় বিদায় দিয়েছেন মসজিদ কমিটি ও মুসল্লিরা। মঙ্গলবার (৭ মে) বাদ এশা মসজিদে অনাড়াম্বর এক বিদায় অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

মসজিদ কমিটি সূত্র জানায়, চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বেলগাছি এলাকার বাসিন্দা হাফেজ আব্দুল মজিদ দীর্ঘ ৩৭ বছর চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল রোডে অবস্থিত বায়তুল আমান জামে মসজিদের পেশ ঈমাম ছিলেন। এমতাবস্থায় হাফেজ আব্দুল মজিদ বয়সের ভারে নুয়ে পড়ায় মসজিদ কমিটি তাকে সম্মানের সহিত রাজকীয় বিদায় জানায়।

তাকে মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে ওমরা হজ পালন করানোর খরচ বহনসহ নগদ ৩ লাখ টাকা দিয়ে ফুলের শুভেচ্ছা দিয়ে বিদায় জানানো হয়।

এ সময় উপস্থিত মসজিদ কমিটির লোকজনসহ সাধারণ মুসল্লিরা তাকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। পরে হাফেজ আব্দুল মজিদকে ফুল দিয়ে সাজানো মাইক্রোবাসে করে বাড়িতে পৌঁছে দেয় মসজিদ কমিটি। হাফেজ আব্দুল মজিদের এই রাজকীয় বিদায়ে তার পরিবারসহ সাধারণ মানুষ বায়তুল আমান জামে মসজিদের কমিটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

বিদায় অনুষ্ঠানে মুফতি রুহুল আমীনসহ মসজিদ কমিটির সদস্যরাসহ সাধারণ মুসল্লিরা ও অত্র এলাকার হাফেজ ওলামাগণ উপস্থিত ছিলেন।

হাফেজ আব্দুল মজিদ আবেগজড়িত কণ্ঠে বলেন, আল্লাহ পাক আমাকে এ সম্মান দিলেন। তার দরবারে হাজারো শুকরিয়া। আমি সত্যিই অভিভূত হয়েছি।